Home / বিবিধ বিনোদন / পোশাকের বাহারে স্টাইল স্টেটমেন্টে বছর মাতালেন যে নায়িকারা

পোশাকের বাহারে স্টাইল স্টেটমেন্টে বছর মাতালেন যে নায়িকারা

দেশের স্টাইল স্টেটমেন্ট শাসন করে বলি নায়ক-নায়িকারাই। সে সত্তর হোক বা নব্বই কিংবা ফিলহাল সময়। পর্দার চরিত্রের অনুকরণের পোশাকই অঙ্গে তুলে নেন তাঁদের ভক্তরা। অতীতে অমিতাভ বচ্চনরে বেলবটমস প্যান্ট যেমন সাড়া ফেলেছিল, তেমনই একটা সময় ইয়ং জেনরেশনের স্টাইল স্টেটমেন্ট ঠিক করে দিয়েছিলেন শাহরুখ খান। সে ট্রাডিশন সমানে চলছে। তবে কম যান না নায়িকারাও। অন্তত ২০১৭-র দিকে তাকালে তাই মনে হয়। দীপিকা পাড়ুকোন থেকে আলিয়া ভাট, বহু নায়িকাই তাঁদের পোশাক বৈচিত্রে নজর কেড়েছেন।

দীপিকার কথা দিয়েই শুরু করা যাক। বছরের শুরুটা হলিউডি ছবিতেই কেটেছে। শেষের দিকটা কাটল পদ্মাবতী জট নিয়ে। তবে এর মধ্যেই বাহারি পোশাকে নজর কেড়েছেন নায়িকা। বিজ্ঞাপন কিংবা পণ্যের প্রচারে তাঁর ড্রেসিং সেন্স তারিফ কুড়িয়েছে। এবং সেই সঙ্গে আরও একটা কাজ করেছেন নায়িকা। নীতি পুলিশের মুখ বন্ধ করে জানিয়ে দিয়েছেন, ‘পোশাক আমি নিজের জন্য পরি, আর কারও জন্য নয়।’

নেটদুনিয়ায় এই এক সমস্যার শিকার বছর জুড়েই হয়েছেন অভিনেত্রীরা। যে কোনও পোশাক পরেই বডি শেমিংয়ের শিকার হয়েছেন। এষা গুপ্তা থেকে মন্দিরা বেদি কেউ বাদ যাননি। সোনম কাপুরকেও কটাক্ষ সহ্য করতে গিয়েছে। কিন্তু বলিপাড়ায় ফ্যাশনের ব্যাপারে সোনমের বেজায় সুনাম। এবছরটাও নিজের ফ্যাশন সেন্সে মাত করেছেন।

আলিয়া ভাট, বা সামন্থারাও কম যান না। পূর্বসূরিদের দেখে তাঁরাও নিজেদের পছন্দের পোশাক পরেই নীতি পুলিশের মুখ বন্ধ করেছেন।

এদিকে প্রিয়াঙ্কা চোপড়া ও ঐশ্বর্য রাই তাঁদের স্টাইল স্টেটমেন্টে জেল্লা ছড়িয়েছেন বিদেশের মাটিতেও।

এক প্রখ্যাত সিনে ম্যাগাজিনের সুন্দরী সংখ্যায় সত্যিই মোহময়ী সাজে ধরা দিয়েছিলেন ক্যাটরিনা কাইফ।

ঘরের মাটিতে ঠিক সে কাজই করেছেন সোনাক্ষী সিনহা, কাজল আগরওয়াল বা ভূমি পেড়নেকররা। ছবির চরিত্রের বাইরে বেরিয়ে তাঁদের ব্যক্তিগত জীবন যে আলাদা তা বারবার পোশাকের স্বাতন্ত্রে বুঝিয়ে দিয়েছেন নায়িকারা। এবং যত বডি শেমিং হোক, আর যত সমালোচনাই হোক, নিজেদের স্টাইল স্টেটমেন্টকে প্রতিষ্ঠা করতে বিন্দুমাত্র দ্বিধা করেননি।

About admin

I Love LiveNetBD

Check More

ডিভোর্স মেনে নিয়েছি: অপু বিশ্বাস

সব জল্পনা কল্পনার অবসান ঘটিয়ে অবশেষে ডিভোর্স মেনে নেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন অপু বিশ্বাস। আজ সোমবার …

Leave a Reply